ফেসবুক মার্কেটিং করে আয়। ফেসবুক মার্কেটিং ফ্রিল্যান্সিং- Facebook marketing bangla.

মোবাইল দিয়ে ফেসবুক মার্কেটিং , ফেসবুক মার্কেটিং ফ্রিল্যান্সিং, ফেসবুক মার্কেটিং কি,

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ

ফেসবুক মার্কেটিং করে আয় কিভাবে করা যায় এই বিষয় নিয়ে সম্পূর্ণ ধারণা দেবো আজকে। এই পোস্ট শেষ পর্যন্ত পড়লে আপনি ফেসবুক মার্কেটিং এর মোটামুটি ভালো একটা ধারণা পেয়ে যাবেন। 

প্রত্যেক কাজেরই অনেক রকম টেকনিক রয়েছে । সেগুলো ডিপেন্ড করে আপনি কি ভিত্তি করে কাজ করতে চাচ্ছেন। মনে করেন আপনি চাচ্ছেন আপনার একটা প্রোডাক্ট ফেসবুকে মার্কেটিং করে সেটা সেল দেওয়ার জন্য সে ক্ষেত্রে আপনার টেকনিক হবে একটা। আবার আপনি যদি কোন মার্কেটপ্লেস থেকে ফ্রিল্যান্সার হয়ে  কোনো বায়ারের হয়ে ফেসবুক মার্কেটিং করতে চান সেক্ষেত্রে অন্যভাবে কাজগুলো করতে হবে। 

নিজের প্রডাক্ট সেল দেওয়ার জন্য ফেসবুক মার্কেটিং। 

নিজের যে কোন প্রোডাক্ট ফেসবুকে মার্কেটিং করে সেল করার সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি হচ্ছে ফেসবুকে অ্যাড দেওয়া। এর জন্য প্রথমে আপনাকে ফেসবুক প্রোফাইল থেকে একটা ফেসবুক পেইজ তৈরি করতে হবে। তারপর আপনি এই পেজে একটা পোস্ট তৈরি করবেন। পোস্ট তৈরি করার ক্ষেত্রে অবশ্যই যে প্রোডাক্ট সেল করতে চাচ্ছেন তারা ভালো ভালো পিকচার অ্যাড করবেন। পোস্টের ডিটেলসে অবশ্যই আকর্ষণীয় লেখা লিখবেন। তারপর এই পোস্ট ফেসবুকের মাধ্যমে এড দিয়ে সেটা মানুষের কাছে পৌঁছে দেবেন। 

এই কাজগুলো করার জন্য আপনাকে বেশ কয়েকটি দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। অবশ্যই কোন আকর্ষণীয় প্রোডাক্ট আপনি ফেসবুকে সেল দেওয়ার জন্য বিজ্ঞাপন দিবেন। আপনার প্রোডাক্টটা কোন বয়সের মানুষ এবং কোন জায়গার মানুষ বেশি ব্যবহার করতে পারে  এড দেওয়ার সময় সেগুলো অবশ্যই বেছে নেবেন। আপনি যত বেশি টার্গেটেড অডিয়েন্স এর কাছে পৌঁছাতে পারবেন তত বেশি সেল হওয়া সম্ভাবনা রয়েছে। 

ফেসবুক মার্কেটিং ফ্রিল্যান্সিং। 

আমরা এটাকে ফেসবুক মার্কেটিং এর ফ্রিল্যান্সিং বলে তুলে ধরতে পারি। এই পুরো কাজটাই আপনাকে বায়ারের নির্দেশনা মত করতে হবে। এক্ষেত্রে বায়ার ঠিক করে দেবে কোন দেশের মানুষ এবং কোন বয়সের মানুষের কাছে প্রোডাক্ট মার্কেটিং করতে হবে। অনেক সময় ফেসবুক পেজ ছাড়া আপনাকে বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপেও মার্কেটিং করতে বলতে পারে। এক্ষেত্রে আপনার কাজ হবে প্রোডাক্ট এর ছবি তৈরি করা , প্রোডাক্ট এর ডিটেলস তৈরি করা, এবং বায়ারের নির্দেশনা মত সেগুলো ফেসবুকে মার্কেটিং করা। এক্ষেত্রে বায়ার কে আপনার কাজের প্রমাণ দেওয়ার জন্য  আপনাকে google sheet বা Excel এর কাজ জানতে হবে। 

ফেসবুক মার্কেটিং এর এরকম কাজগুলো পাওয়ার জন্য আপনাকে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে জয়েন করতে হবে। বর্তমান সময়ের পপুলার কিছু মার্কেট প্লেস হচ্ছে ফাইবার, আপ-ওয়ার্ক ফ্রিল্যান্সার ইত্যাদ। এসব মার্কেটপ্লেস একাউন্ট তৈরি করে গীগ তৈরি করে রাখলে। পরবর্তীতে কেউ যদি আপনাকে কাজ দেওয়ার জন্য আগ্রহী হয় তাহলে আপনাকে নক করবে।। 

ফেসবুক মার্কেটিং এর ধাপগুলি নিম্নরূপ। 

ধাপ ১: অ্যাকাউন্ট তৈরি করুন এবং পেজ তৈরি করা। 

ধাপ ২: টার্গেট পাবলিক নির্ধারণ করুন।

ধাপ ৩: মার্কেটিং প্রডাক্ট নির্বাচন করুন । 

ধাপ ৪: বিজ্ঞাপন পোস্ট তৈরি করুন এবং প্রকাশ করুন।

ধাপ ৫: বিজ্ঞাপন রিভিউ করুন এবং পর্যালোচনা করুন।

ধাপ ৬: আপনার বিজ্ঞাপন এড দিয়ে প্রচার করুন। 

ফেসবুক মার্কেটিং করে কি কি ভাবে ইনকাম করা যায়। 

ফেসবুক মার্কেটিং করে নিজের প্রোডাক্ট সেল করে ইনকাম করা যায় । ফেসবুক মার্কেটিং থেকে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে কাজ করে ইনকাম করা যায়। নিজের কোন সার্ভিস ফেসবুক মার্কেটিং করে প্রচার করে সেখান থেকে ইনকাম করা যায়। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করেও ফেসবুক থেকে ইনকাম করা যায়। বিভিন্ন কোম্পানির অফার প্রমোশন করে ফেসবুক মার্কেটিং করে ইনকাম করা যায় ।

Relered Search: ফেসবুক মার্কেটিং কত প্রকার,  ফেসবুক মার্কেটিং ফ্রিল্যান্সিং, ফেসবুক মার্কেটিং কি, মোবাইল দিয়ে ফেসবুক মার্কেটিং, কিভাবে ফেসবুকে প্রতিদিন 500 আয় করা যায়, ফেসবুক মার্কেটিং এর কৌশল, ফেসবুক মার্কেটিং করে আয়, ফেসবুক মার্কেটিং কত প্রকার, facebook marketing bangla, 

Leave a Comment