কাজাখস্তান সরকারি স্কলারশিপ ব্যাচেলর , মাস্টার্স, পিএইচডি। Government scholarship for bangladeshi students.

আসসালামু আলাইকুম আজকে আমরা কথা বলব কাজাখস্তান সরকারি স্কলারশিপ নিয়ে এটা অনেক পপুলার একটা স্কলারশিপ আজকে আমরা এই স্কলারশিপ এর শুরু থেকে শেষ আলোচনা করব

কাজাখস্তান সরকারি স্কলারশিপ। kazakhstan government scholarship.

Government scholarship for bangladeshi students

কাজাখস্তান সরকারি স্কলারশিপ সাধারনত প্রতি বছর ঘোষনা করা হয় বিভিন্ন দেশের মানুষ এখানে এপ্লাই করে যারা বাংলাদেশ এর নাগরিক তারা এই স্কলারশিপ এপ্লাই করতে পারবে এই স্কলারশিপ ব্যাচেলর, মাস্টার পিএইডি এর জন্য দেওয়া হয় তবে ব্যাচেলর এর আসন সংখ্যা বেশি থাকে আর বাকি গুলোর কম থাকে

কাজাখস্তান সরকারি স্কলারশিপ এর আসন সংখ্যা।

অনার্স আসন সংখ্যা: ৪৯০ টি

মাস্টার্স আসন সংখ্যা: ৫০ টি

পিএইচডি আসন সংখ্যা: ১০ টি

কাজাখস্তান স্কলারশিপ এ আবেদন করতে কি কি ডকুমেন্ট লাগবে।

identification document তথা পাসপোর্ট অথবা আইডি কার্ড

একাডেমিক শিক্ষার সকল সার্টিফিকেট ও মার্ট শিট (ট্রান্সক্রিপ্ট সহ) (কাজাখ বা ​​রাশিয়ান বা ইংরেজিতে নোটারিকৃত অনুবাদ) আমাদের সকল একাডেমিক কাগজ ইংরেজি  তে থাকে তাই সত্যায়িত বা নোটারি করানো বাধ্যতামূলক নয়।

কাজাখ বা ​​রাশিয়ান বা ইংরেজিতে লেখা মটিভেশনাল লেটার।

যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পূর্বে অধ্যয়ন করেছেন বা নিয়োগকর্তার কাছ থেকে কাজাখ বা ​​রাশিয়ান বা ইংরেজি ভাষায় লেখা রেফারেন্স লেটার। [অনার্স এর জন্য একটি , মাস্টার্স ও পিএইচডি এর জন্য দুটি করে।]

বিদেশে অধ্যয়নের জন্য মেডিকেল সার্টিফিকেট, সেইসাথে প্রার্থীর বসবাসের দেশের সরকারী স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ দ্বারা জারি করা হিউম্যান ইমিউনোডেফিসিয়েন্সি ভাইরাস (এইচআইভি সংক্রমণ) এবং এইডস রোগের অনুপস্থিতি সম্পর্কে একটি মেডিকেল শংসাপত্র। [ মেডিকেল ফিটনেস সার্টিফিকেট]

কাজাখস্তান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আমন্ত্রণ পত্র (যদি থাকে)

কাজাখস্তান স্কলারশিপ এর আবেদন ফরম। যা আপনি ওয়েবসাইট এই পাবেন।

কাজাখস্তান সরকারি স্কলারশিপ এ আবেদন পদ্ধতি।

কাজাখস্তান সরকারি স্কলারশিপ এর সকল আবেদন এর কাজ অনলাইন এ কম্পিলিট করতে হবে। আবেদন করার জন্য কোন কাগজ পএ কলেজ এ পাঠানো লাগবে না। প্রতি বছর তাদের ওয়েবসাইট এ স্কলারশিপ এর সার্কুলার দিয়ে থাকে।

ওয়েবসাইট লিংক: https://enic-kazakhstan.edu.kz/en/

আপনাকে ওয়েবসাইট এ যাওয়ার পর তাদের স্কলারশিপ এর বিজ্ঞপ্তি তে যেতে হবে সেখানে আবেদন এর জন্য লিংক দেওয়া থাকে আপনাকে সেখানে একাউন্ট করে আবেদন করতে হবে আবেদন করার জন্য প্রথম এ উল্লেখিত ডকুমেন্ট গুলো স্কেন করে পিডিএফ করে নিতে হবে তারপর ওয়েবসাইট এ গিয়ে আবেদন করতে হবে আবদেন কম্পিলিট করা হলে আপনার দেওয়া ইমেইল এ আপনাকে কনফার্ম করা হবে তারপর আপনাকে সহজ একটা অনলাইন টেস্ট দিতে হবে আপনি যদি সিলেক্ট হন তাহলে আপনাকে অনলাইন এ একটা ইন্টারভিউ দিতে হবে এই ধাপ কম্পিলিট করলেই আপনি স্কলারশিপ টি পেয়ে যাবেন

তারপর আপনাকে ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে আবেদন করার পর আপনি ভিসা পেয়ে গেলে সরাসরি সেখানে গিয়ে লেখাপড়া করতে পারবেন

কাজাখস্তান সরকারি স্কলারশিপ বিশ্ববিদ্যালয় নির্বাচন।

কাজাখস্তান সরকারি স্কলারশিপ এ অনেক গুলো বিশ্ববিদ্যালয় আছে। এর মধ্যে আপনাকে আপনার পছন্দ এর কলেজ নির্বাচন করতে হবে। তবে নির্বাচন করার সময় একটা কথা মনে রাখবেন। কখনো শুধু রাশিয়ান বা কাজাখ ভাষায় পড়ানো হয় এরকম কোর্স সিলেক্ট করবেন না। আপনি কোন বিশ্ববিদ্যালয় এ কোন কোর্স এ কোন কোন সাবেজেক্ট কোন ভাষায় পড়ানো হয় তার লিস্ট আপনি ওয়েবসাইট এ পেয়ে যাবেন।  

কাজাখস্তান সরকারি স্কলারশিপ এর সুবিধা

আপনাকে কোন টিউশন ফি দিতে হবে না

মেডিকেল ফি দিতে হবে না

আপনাকে সেখানে থাকা খাওয়ার জন্য টাকা দেওয়া হবে

আপনি ইংরেজি ভাষায় লেখাপড়া করতে পারবেন

আবেদন করার জন্য কোন ফি দিতে হবে না

ব্যাচেলর এর জন্য কোন লেংঙ্গুয়েজ সার্টিফিকেট তথা IELTS , TOEFL লাগবে না

কাজাখস্তান সরকারি স্কলারশিপ এর অসুবিধা

কাজাখস্তান এর এম্বাসি বাংলাদেশ এ নেই তাই আপনাকে ভিসার জন্য ভারত যেতে হবে

ভিসার জন্য সকল খরচ নিজেকে বহন করতে হবে ভারত এর ভিসা ও সেখানে থাকা খাওয়ার খরচ আপনাকেই বহন করতে হবে

আপনাকে যে টাকা দেওয়া হবে সেই টাকা দিয়ে সকল খরচ চালানো কঠিন হয়ে যাবে তাই বাড়ি থেকে কিছু টাকা নিতে হবে অথবা পার্ট টাইম কাজ করতে হবে

স্কলারশিট এ অনেক প্রতিযোগিতা থাকে তাই ভালো রেজাল্ট ও এক্সট্রা কারিকুলাম একটিভিটি থাকলে আপনি এগিয়ে থাকবেন প্রতি বছর মার্চ থেকে মে এর মধ্যে সাধারনত এই স্কলারশিপ এর আবেদন কাজ চলে আপনারা যারা আবেদন করবেন আগে থেকে সকল কাগজ রেডি করে রাখবেন আপনারা এই স্কলারশিপ এ অনেক সুযোগ সুবিধা নিয়ে সেখানে লেখাপড়া করতে পারবেন। ধন্যবাদ সবাইকে।

 

Next Post Previous Post